1. kmohiuddin456@gmail.com : admin :
  2. dailybanglarrobi@gmail.com : Arif Mahamud : Arif Mahamud
  3. jahedulhaque24@gmail.com : Jahidul Hoque Masud : Jahidul Hoque Masud
রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে, যোগাযোগ : ০১৭০৮ ৫১৫৫৩৫, প্রচারেই প্রসার # সকল প্রকার বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন - ০১৭১২ ৬১৮৭০০

হামিদ চেয়ারম্যানের শোকতপ্ত পরিবারের জন্য ইউএনও‘র উপহার

রিপোর্টার :
  • হালনাগাদ : শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০
  • ৪৮ Time View

কলারোয়া প্রতিনিধি:
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরার কলারোয়ার আদর্শ কেরালকাতা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ সরদারের মৃত্যুতে উপজেলা প্রশাসনসহ এলাকাবাসীর মাঝে বিরাজ করছে শোকের কালোছায়া৷ ঠিক সেই সেই মুহূর্তে আনুষ্ঠানিক শোক প্রকাশের পাশাপাশি শোকতপ্ত পরিবারের জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী পাঠিয়েছেন সদ্য নিযুক্ত ইউএনও মৌসুমী জেরীন কান্তা।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বিকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী জেরীন কান্তার নির্দেশে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আক্তার হোসেন আইসোলেশনে থাকা প্রয়াত এ ইউপি চেয়ারম্যানের পরিবারের সার্বিক খোঁজ খবর নেন। এ সময় শোকতপ্ত পরিবারটির পাশে থাকার প্রত্যাশা জানিয়ে মরুহুমের রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে উপহারসামগ্রী দেন তারা।

পাশাপাশি শোকতপ্ত এ পরিবারটির প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে৷ পরে অন্যান্য চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলে যেকোন প্রয়োজনে উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করার আহ্বান জানান তারা।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরিবারের জন্য উপহার সামগ্রী হিসেবে খাদ্য সামগ্রীসহ ২০ প্রকার উপকরণ দেওয়া হয়।

পরে, উপজেলার আরও ছয় করোনা রোগীর খোঁজ-খবর নিয়ে তাদের বাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়৷

কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মৌসুমি জেরীন কান্তা বলেন, কলারোয়াবাসী একজন নিবেদিত জনপ্রতিনিধিকে হারালো। আসলে এই পরিবারটির স্বান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা আমার নেই। এই গুণী মানুষটির শূন্যতা কখনো পূরণ হওয়ার নয়। আর এই পরিবারটির পাশে সবসময় উপজেলা প্রশাসন থাকবে।

তিনি আরও বলেন, মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সবাইকে সরকারি নির্দেশ মেনে চলতে হবে। করোনা প্রতিরোধে প্রশাসনের নির্দেশনার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলতে হবে৷

করোনাপ্রবণ এলাকায় সরকারি কর্মকর্তারা ঝুঁকিতে রয়েছেন কী না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ইউএনও কান্তা বলেন, আসলে আমরা সরকারি চাকরিজীবী। আমাদের সবসময় মাঠে থাকতে হয়। আবার অফিসিয়াল কাজও করতে হয়। আমরা সরকারি চাকরিজীবীরা ঝুঁকিতে থাকলেও আমাদের রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব আমাদের পালন করতেই হবে। তবে করোনার মধ্যে আমাদের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে সরকারি গাইডলাইন মেনে চলতে হয়।

তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমার উপজেলা চেয়ারম্যানের সহযোগিতা সবসময় পাচ্ছি। তিনিও একজন সম্মুখযোদ্ধা। সবাই মিলেই কাজ করলে অবশ্যই করোনা প্রতিরোধ করা সম্ভব।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

এই শাখায় অন্যান্য খবর
%d bloggers like this: