1. kmohiuddin456@gmail.com : admin :
  2. dailybanglarrobi@gmail.com : Arif Mahamud : Arif Mahamud
  3. jahedulhaque24@gmail.com : Jahidul Hoque Masud : Jahidul Hoque Masud
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে, যোগাযোগ : ০১৭০৮ ৫১৫৫৩৫, প্রচারেই প্রসার # সকল প্রকার বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন - ০১৭১২ ৬১৮৭০০

ভালো কলেজে ভর্তির জন্য ঘুষ দিয়েছিলেন ট্রাম্প!

রিপোর্টার :
  • হালনাগাদ : বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০
  • ৫১ Time View

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভাতিজি মেরি ট্রাম্প তার প্রকাশিত বইয়ে দাবি করেছেন, ভালো কলেজে ভর্তি হওয়ার জন্য ট্রাম্প কাউকে ঘুষ দিয়েছিলেন। বইটি নির্ধারিত সময়ের দুই সপ্তাহ আগেই প্রকাশিত হচ্ছে। সেই হিসেবে আগামী সপ্তাহে বইটি প্রকাশ করা হবে।

এরই মধ্যে এর কপি বিভিন্ন মিডিয়ার হাতে এসেছে। মার্কিন নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকাও বইয়ের কপি হাতে পেয়েছে। বইতে মেরি ট্রাম্প পারিবারিক জীবনের অনেক গোপন তথ্য প্রকাশ করেছেন। এই প্রথম ট্রাম্প পরিবারের কেউ এভাবে এসব কথা প্রকাশ করছেন।

মেরি ট্রাম্পের বইয়ের নাম ‘টু মাচ অ্যান্ড নেভার এনাফ : হাউ মাই ফ্যামিলি ক্রিয়েটেড দ্য ওয়ার্ল্ডস মোস্ট ডেঞ্জারাস ম্যান।’ এতে তিনি বলেছেন, হাইস্কুল শেষে ট্রাম্প ভালো কলেজে ভর্তি হতে চেয়েছিলেন। এজন্য তার হয়ে প্রবেশিকা ‘স্যাট’ পরীক্ষা দিতে একজনকে ঘুষ দিয়েছিলেন। ঐ ব্যক্তি তার হয়ে পরীক্ষা দিয়েছিলেন। এর মাধ্যমেই ট্রাম্প পরিচিত ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভানিয়ার হোয়ার্টন বিজনেস স্কুলে ভর্তির সুযোগ পেয়েছিলেন। এই স্কুলকে ট্রাম্প বিশ্বের সবচেয়ে ভালো স্কুল বলে আখ্যা দিয়ে থাকেন।

মেরি ট্রাম্প লিখেছেন, বর্তমান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বড় ভাই ফ্রেড ট্রাম্প জুনিয়র অ্যালকোহলে আসক্ত ছিলেন। ৪২ বছর বয়সেই ১৯৮১ সালে তিনি মারা যান। তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। কিন্তু তাকে হাসপাতালে একা পাঠানো হয়েছিল। ঐ সময় ডোনাল্ড ট্রাম্প সিনেমা দেখতে গিয়েছিলেন। মৃত্যুর আগেই পারিবারিক ব্যবসা থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছিলেন ফ্রেড ট্রাম্প জুনিয়র।

ট্রাম্প একবার নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেছিলেন, তার ভাই সরে যাওয়ায় তার জন্য ভালো হয়েছিল। নিউ ইয়র্ক টাইমস জানায়, ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিতে ডিগ্রি রয়েছে মেরি ট্রাম্পের।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

এই শাখায় অন্যান্য খবর
%d bloggers like this: