1. kmohiuddin456@gmail.com : admin :
  2. dailybanglarrobi@gmail.com : Arif Mahamud : Arif Mahamud
  3. jahedulhaque24@gmail.com : Jahidul Hoque Masud : Jahidul Hoque Masud
রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০২:১৫ অপরাহ্ন
নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে, যোগাযোগ : ০১৭০৮ ৫১৫৫৩৫, প্রচারেই প্রসার # সকল প্রকার বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন - ০১৭১২ ৬১৮৭০০

জিডি করায় শত্রুর কোপে সাবাড় ২৫০০ গাছ

রিপোর্টার :
  • হালনাগাদ : সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৬ Time View

বান্দরবান প্রতিনিধি:

বান্দরবানের লামায় প্রাণনাশের হুমকিতে জিডি করায় এক কৃষকের ২৫০০ বনজ-ফলদ গাছের চারা কেটে ফেলেছে শত্রুরা। লামা উপজেলার সদর ইউপির দুর্গম পাহাড়ি নকসার ঝিরি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
সোহরাব হোসেন জানান, লামা উপজেলার নকসার ঝিরি এলাকায় তার প্রায় ১০ একর জায়গা রয়েছে। ওই জায়গাতে বিভিন্ন ফলদ ও বনজ বাগানসহ খামার ঘর করে গত ১৮-২০ বছর ধরে ভোগ করে আসছেন। সম্প্রতি পৌরসভার রাজবাড়ী গ্রামের মো. ওসমান ও ইব্রাহিম নামে দুই ব্যক্তি ওই জায়গা জবর-দখল করার জন্য নানা ষড়যন্ত্র শুরু করেন।

প্রাণনাশের হুমকি পেয়ে থানায় জিডি করায় প্রতিপক্ষ মো. ইব্রাহিম তার লোকজন এসব ক্ষতি করেছেন বলে জানান কৃষক সোহরাব। গত ৬ আগস্ট ইব্রাহিমসহ আরো ৭-৮ জন সংঘবদ্ধ হয়ে কৃষক সোহরাব হোসেনকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দেন। এর পরদিন সোহরাব জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় একটি জিডি করেন।

ইব্রাহিম গং ক্ষিপ্ত হয়ে গত শুক্রবার রাতে সোহরাব হোসেনের জায়গার ওপর করা বাগানের দেড় হাজার কলা গাছ, এক হাজার সেগুনসহ বাঁশ, ৬০ শতক জমিতে রোপিত ধানের চারা কেটে ও উপড়ে ফেলেন। এর আগে গত ১৬ এপ্রিল ও ১২ মে সোহরাব হোসেনের বিভিন্ন প্রজাতির ৩ হাজার ৩০০টি গাছের চারা কেটে নেন মো. ইব্রাহিম। এতে ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়।

কৃষক সোহরাব হোসেন বলেন, হামলা ও গাছ কেটে ক্ষতি সাধন করার কারণে নিঃস্ব হয়ে পড়েছি। ইব্রাহিম গংয়ের হামলা ও জায়গা জবর-দখল চেষ্টা থেকে মুক্তি চাই।

স্থানীয়রা জানান, সোহরাব হোসেনের জায়গায় রোপিত গাছের চারা কেটে দেন প্রতিপক্ষ ইব্রাহিম ও তার লোকজন।

হেডম্যান হ্লাথোয়াই মার্মা বলেন, সোহরাব হোসেনের জায়গাতে না যাওয়ার জন্য ওসমান গণি ও মো. ইব্রাহিমকে নিষেধ করেছিলাম। কারণ ওই জায়গা ১৮-২০ বছর ধরে সোহরাব হোসেন ক্রয়সূত্রে মালিক হয়ে আবাদ করে আসছেন।

অভিযুক্ত মো. ইব্রাহিম বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল হাফিজ বলেন, ইব্রাহিম গং গত শুক্রবার রাতে কৃষক সোহরাব হোসেনের বাগানের প্রায় আড়াই হাজার কলা, সেগুন, বাঁশ গাছ ও ধানের চারা কেটে ও উপড়ে ফেলে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছেন।

লামা থানার এএসআই লিংকন দেব বলেন, কৃষক সোহরাব হোসেনের অভিযোগের ভিত্তিতে রোববার বিকেলে ঘটনাস্থল পারিদর্শন করেছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

এই শাখায় অন্যান্য খবর
%d bloggers like this: