1. kmohiuddin456@gmail.com : admin :
  2. printrajbd@gmail.com : admin1 :
  3. dailybanglarrobi@gmail.com : Arif Mahamud : Arif Mahamud
  4. jahedulhaque24@gmail.com : Jahidul Hoque Masud : Jahidul Hoque Masud
সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
‘শান্তি ফেরাতে ৩ পার্বত্য জেলায় আধুনিক পুলিশ মোতায়েন করা হবে’ বেপরোয়া গাড়ি চালানো বন্ধ করতে বললেন ওবায়দুল কাদের বেসরকারি হাসপাতালের সেবামূল্য সরকার নির্ধারণ করবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিদেশে পাচারকৃত অর্থ ফেরাতে হাইকোর্টের রুল নেশার টাকা না পেয়ে মাকে মেরেই ফেললেন পাপিয়া আয়ারল্যান্ডকে ইনিংস ব্যবধানে হারালো বাংলাদেশ প্রযুক্তির সঙ্গে খাপ খাওয়াতে তরুণদের দক্ষ-পারদর্শী করে তুলতে হবে: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী অধিকারের প্রশ্নে শামসুল হক ছিলেন আজীবন আপসহীন: গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী ৪৮ হাজার শিক্ষককে যেতে হবে প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনালে মায়ের চিকিৎসার অর্থ যোগাতে ক্রিকেটে ফিরতে শাহাদাতের আকুতি
নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে, যোগাযোগ : ০১৭০৮ ৫১৫৫৩৫, প্রচারেই প্রসার # সকল প্রকার বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন - ০১৭১২ ৬১৮৭০০

রিভার্স সুইংয়ের

রিপোর্টার :
  • হালনাগাদ : শুক্রবার, ১০ জুলাই, ২০২০
  • ৬৫ Time View

ক্রীড়া ডেস্ক:
ফাস্ট বোলারদের প্রধান অস্ত্র সুইং। ব্যাটসম্যানকে কাবু করতে পেসাররা সাধারণত তিনটি পৃথক পদ্ধতি ব্যবহার করে বলটি বাতাসের মধ্য দিয়ে ঘুরিয়ে দেয়। এগুলো হলো- প্রচলিত সুইং, কনট্রাস্ট সুইং ও রিভার্স সুইং। কিন্তু এবার জানা গেলো নতুন আরো এক পদ্ধতির নাম যার আবিষ্কারক বলা যায় ইংলিশ ফাস্ট বোলার জেমস অ্যান্ডারসন। তিনি রিভার্স সুইং বলকেও রিভার্স করতে পারেন বলে জানিয়েছেন ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার।
দীর্ঘ ক্যারিয়ারে মোট ১৪টি টেস্ট ম্যাচে এন্ডারসনের মুখোমুখি হয়েছেন শচীন। রেকর্ড নয়বার এই বোলারের কাছে পরাস্ত হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন মাস্টার ব্লাস্টার। সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ক্রিকেটার ব্রায়ান লারার সঙ্গে এক আলাপচারিতায় রিভার্স সুইংয়ের রিভার্স নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। সেখানেই শচীন জানান, রিভার্স সুইং বল করার সময় নিজের কব্জির মোচড়ে সেই বলের রিভার্স ঘটিয়ে ব্যাটসম্যানদের বিভ্রান্ত করতেন অ্যান্ডারসন।

শচীন বলেন, ‘জিমি অ্যান্ডারসন সম্ভবত প্রথম বোলার যিনি রিভার্স সুইংকেও উল্টে দিয়েছিলেন। আমি তার বিরুদ্ধে খেলার সময় যা অভিজ্ঞতা পেয়েছি তা হল, দৌড়ে আসার সময় জিমি বলটি এমনভাবে ধরে রাখতেন যেন তিনি রিভার্স সুইং বল করছেন। বল ছাড়ার সময় তিনি দেখাতেন বলটি ভেতরে ঢোকানোর চেষ্টা করছেন। তার কব্জির অবস্থানের দিকে নজর রাখলে আপনি সেটাই দেখবেন, কিন্তু পিচ করার পর বলটি আপনার থেকে দূরে সরে যাবে অর্থাৎ আউটসুইং হবে।’

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান করা এই ব্যাটসম্যান যোগ করেন, ‘অ্যান্ডারসন আপনাকে অ্যাকশনের ধরণ থেকে ইনসুইং বল খেলতে বাধ্য করবে। তবে বলটি পিচের দৈর্ঘ্যের প্রায় তিন-চতুর্থাংশ পেরিয়ে আসার পর আপনি বুঝতে পারবেন এটা আউটসুইং ছিল। কিন্তু এরইমধ্যে আপনি ইনসুইং বল হিসেবে শট খেলতে প্রস্তুত, ফলে আপনি পরাস্ত হতে বাধ্য। আমার কাছে এটি নতুন ছিল। জিমির আগে কেউ তা করেনি।’

রিভার্স-সুইং কন্ডিশনে অ্যান্ডারসন তার ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা স্পেল করেছিলেন ২০১২ সালে। সেবার কলকাতায় একেরপর এক সুইং ডেলিভারিতে ভারতের ব্যাটসম্যানদের নাস্তানাবুদ করেছিলেন তিনি। তবে সেসময় জিমি রিভার্স সুইংয়ের রিভার্স বল করেছিলেন কি না তা জানা যায়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

এই শাখায় অন্যান্য খবর
%d bloggers like this: